সাগর-রুনির খুনিরা ধরা পড়ে না, বিভক্ত ও বিচ্ছিন্ন হয় ঢাকা!


জাহাঙ্গীর আলম আকাশ ।। হাসিনার মহাজোট সরকার প্রাচীন ঢাকাকে বিভক্ত করার পর এবার বিচ্ছিন্ন করে দিল! ঐতিহ‍্যবাহী ঢাকা মহানগরীকে বিভক্ত করে দুই ভাগ করা হয়েছে। অনেকে মনে করে, ঢাকা সিটি করপোরেশনের মেয়রের পদটি বিএনপির হাত থেকে নিজেদের দখলে নিতেই আওয়ামী লীগ এই কাজটি করেছে। আওয়ামী লীগ জনমত যাচাই না করেই ঢাকাকে ভাগ করে। আর এখন তারা বিরোধীদলের একটি সমাবেশকে ঘিরে পুরো ঢাকাকেই বিচ্ছন্ন করে রেখেছে গোটা দেশ থেকে। ঢাকায় কী শুধু বিএনপির নেতা-কর্মীরাই আসতো এই কয়েকদিনে। নাকি হাজারো সাধারণ মানুষ ঢাকায় আসতেন নানান জরুরি কাজে। কিংবা অনেকেই ইতোমধে‍্য ঢাকায় এসেছেন, যাদেরকে আরও কয়েকদিন ঢাকায় থাকতে হবে। সরকার হোটেলে মানুষ থাকতে পারবে না, লঞ্চে উঠতে পারবে না, বাস চালাতে দেবে না এমন নানান প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছে। এই প্রতিবন্ধকতা কী শুধু বিএনপির সমাবেশের বিরুদ্ধে নাকি এমন অনৈতিক বিধিনিষেধ জনগণের বিরুদ্ধেও যায়? সরকার, সরকারের বিচক্ষণ উপদেস্টারা কী এই সামান‍্য বিবেবচনাবোধটুকুও হারিয়ে ফেলেছে? হাসিনা কী মনে করছেন এসব করে তাদের ভোট বাড়ছে, জনসমর্থন বাড়ছে? নাকি সরকার নিজেই দেশটাকে আবার তারেকজামানায় ফিরিয়ে নিতে চাইছে? সরকার বিএনপির মহাসমাবেশকে বাধাগ্রস্ত করতে যেভাবে হোটেল, বাস, লঞ্চ বন্ধ করে ঢাকাকে বিচ্ছিন্ন করছে, সেভাবে যদি সাগর-রুনি ও খালাফ হত‍্যাকারিদের ধরার জন‍্য তৎপর হতো কিংবা আইনের শাসন ও সাংবিধানিক শাসন বাস্তবায়নে তৎপর হতো অথবা গণতন্ত্র ও সহিষ্ণুতার চর্চা করতো তাহলে দেশের মানুষকে একটা চরম অস্বস্তিকর শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থার মধ‍্য দিয়ে কাটাতে হতো না! সরকার সাগর-রুনি ও খালাফের খুনিদের ধরতে পারে না বা ধরে না, কিন্তু বিএনপির মহাসমাবেশকে পন্ড করতে গণগ্রেফতার করে মানুষের অধিকার ও মর্যাদাকে পর্যুদস্ত করতে এতটুকুও দ্বিধা করছে না। কিন্তু কেন, সরকার কী বুঝতে পারছে না যে এসবে সরকারের নয় বিরোধীদেরই উপকার হচ্ছে, লাভবান হচ্ছে যুদ্ধাপরাধীরাই? ছবিটি গুগল থেকে নেয়া।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s