বাচ্চু পাকিস্তান আর সাহারা ইন্টারপোলের পথে, সাগর-রুনির খুনিদের ব‍্যাপারে সবাই নিশ্চুপ!

জাহাঙ্গীর আলম আকাশ।। সাংবাদিক সাগর-রুনির খুনিরা ধরা পড়েনি। সাহারা খাতুন চুপচাপ। “বেডরুম পাহারা দেয়া সম্ভব নয়” তাই হয়ত খুনিদের সরকার ধরছে না! কারণ সাগর-রুনি বেডরুমে খুন হয়েছিলেন। কিন্তু খালাফ, সৌদি কূটনীতিক মার্ডার হন রাস্তায়। রাস্তায় পাহারা দেয়া সরকারের দায়ত্বের মধে‍্য পড়ে কিনা সেব‍্যাপারে অবশ‍্য এখনও কিছু বলেননি আমাদের বাকপটু প্রধানমন্ত্রি! তবে খালাফের খুনিও ধরা পড়েনি এখনও। পুলিশ, র‍্যাব, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয় সবাই ব‍্যর্থ, খুনিরা লাপাত্তা। আসলো সৌদি তদন্ত দল। তাদের তদন্ত কী পর্যায়ে কেন খুন হলেন খালাফ তাও অজানা।
র‍্যাব জানালো বাচ্চু রাজাকার ভারতে পালিয়েছে। তার গন্তব‍্য পাকিস্তানের পথে। র‍্যাব এতো কিছু জানলো অথচ তাকে ধরলো না। এটা কী বিশ্বাস করার মতো? জামায়াতের সাবেক সদস্য (রুকন) আবুল কালাম আযাদ ওরফে বাচ্চু রাজাকারের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হলো। শেনা গেলো এর আগে থেকেই বাচ্চু গোয়েন্দাজালের ভেতরেই ছিলেন। তাহলে কিভাবে পালিয়ে গেলো? আর যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে আসল ব‍্যক্তিকে গ্রেফতারে ব‍্যর্থ হয়ে সরকার বাহাদুরি দেখালো বাচ্চা রাজাকারের শ্যালক এবং দুই ছেলেকে গ্রেফতার করে দুই দিন করে রিমান্ডে নেয়ার মধ‍্য দিয়ে! কী আশ্চয‍্যর্ সব কান্ড ঘটে চলেছে সোনার বাংলায়!
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রি সাহারা খাতুন এবার বাচ্চু রাজাকারকে ধরার জন‍্য ইন্টারপোলের দিকে রওনা হয়েছেন! তিনি জাতিকে জানিয়েছেন যে, তাকে ধরার জন‍্য ইন্টারপোলের সহায়তা নেয়া হবে। সাগর-রুনির খুনিদের ধরার জন‍্য সাহারা কোন সংস্থার সহায়তা চাইবেন তা সৃষ্টিকর্তাই বলতে পারেন, সাহারাও জানেন না হয়ত! সাগর-রুনির খুনিদের ব‍্যাপারে সবাই এখন ক্লান্ত। সাহারা, বেনজির, হাসান, মনিরুল, আদালত, সাংবাদিক নেতা কারও মুখেই কোন কথা নেই। কিন্তু কেন, রহস‍্যটা কী? কোন জাদুবলে সরকার সবার মাথা কিনলো? নাকি সবাই ঘুমের বড়ি খেয়ে ঘুমোচ্ছন!
খালেদা পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই এর কাছ থেকে নেয়ার অপ্রমাণিত ঘটনাকে নিয়ে হাসিনা থেকে শুরু করে আওয়ামী লীগ ও মহাজোট সরকারের মন্ত্রি-এমপিদের মুখে যখন ফেনা উঠেছে তখন রেলমন্ত্রির এপিএসের গাড়িতে বস্তাভর্তি ৭০ লাখ টাকা বেরুলো! সবই যেন প্রকৃতির খেয়াল! এখন বিএনপি জাতির কান ঝালাপালা করে দেবে এই ঘটনার উছিলায়, এতে কোন সন্দেহ নেই। পরস্পরবিরোধী অভিযোগ আর পাল্টা অভিযোগে সংবাদপত্রের পাতায় খবরের নাচুনি আর টিভির টকশোগুলি ভরে যাবে ফালতু সব গালগল্পে! এসবে জনগণের কী লাভ, কিছুই না।
স্বদেশে আজ ব‍্যর্থতার পর ব‍্যর্থতা, খুনের পর খুন। ইটের ভাটায় শিশুকে পুড়িয়ে হত‍্যা, শিশুকে হত‍্যার পর টুকরো টুকরো করে কেটে ফেলার মতো লোমহর্ষক সব ঘটনায় পাষাণ মনও কেঁদে উঠছে। কাঁদছে না শুধু সরকার! সরকারের আহাম্মকি বড়াই বন্ধ হচ্ছে না। বেকুবরা তারপরও বলছে এবং বলবে দেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অতীতের চেয়ে অনেক ভালো। এভাবে না বললেও হয়ত তারা বলবে যে বিগত সরকারের আমলের চাইতে অনকে ভালো আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি। এতো গোয়েন্দা, র‍্যাব, পুলিশ থাকতে চিহ্নিত রাজাকার পালিয়ে যায়। একটার পর একটা খুন হয়ে যাচ্ছে। তাহলে এসব অথর্বদের জনগণ পুষবেন কেন?
সাগর-রুনি, খালাফ হত‍্যা ও বাচ্চু পালানোর পর খুন হলেন এক সংগ্রামী শ্রমিক নেতা। বাংলাদেশ সেন্টার ফর ওয়ার্কার সলিডারিটির সংগঠক আমিনুল ইসলামকে কারা খুন করলো? সরকার আর কতো শাক দিয়ে মাছ ঢাকার মতো করে জনগণের মুখ বন্ধ রাখার চেষ্টা করবে? একটা খুনের আলোচনা চলতে চলতে আরেকটা খুন। কোনটারই কিনারা করতে পারছে না পুলিশ।
দেশে শত শত মিডিয়া, কোটি কোটি টাকার মালিকরা ব‍্যাঙের ছাতার মতো বের করছে একটার পর একটা মিডিয়া। কিন্তু মিনার মাহমুদদের মতো নির্ভিক সাংবাদিকদের চাকরি মেলে না। আত্মহত‍্যার পথ বেছে নিতে হয়। মিনার মাহমুদের আত্মহত‍্যাতো আর একটি জীবনের চলে যাওয়া নয়। বরং এই সমাজ, রাষ্ট্র এবং তথাকথিত সুশিলদের ওপর চপেটাঘাত!
শ্রমিকদের মানবাধিকার, শুমের মূল‍্য হরণ করে গার্মেন্টস মালিকরা টাকার পাহাড় গড়ে তুলছে অথচ শ্রমিকদের মাত্র ৩ হাজার টাকা মাসে মজুরি দিতে ওদের কলিজাটা ফেটে যায়! শ্রমিক নেতা আমিনুল ইসলামের খুনিদের দ্রুত শনাক্ত করুন, শ্রমিকরা কিন্তু সাংবাদিক নন যে চায়ের মন্ত্রে ভুলবেন। তারা একবার জোটবদ্ধ হলে খবর আছে! সরকারকে বলবো পায়ের তলা থেকে সবটুকু মাটি সরে গেলে কিন্তু ধপাস করে পড়ে যাবেন। এই পড়ে যাবার আগেই একটু তৎপর হোন, খুনিদের ধরুন। নইলে বিপদ, কালবৈশাখীর মতো ধেয়ে আসবে কিন্তু! তখন আর পালানোর জায়গা পাবেন না। মেঘের দায়িত্ব নেয়া মানে কিন্তু সাগর-রুনির খুনিদের আঁড়াল করা বোঝায় না। ছবি গুগল থেকে নেয়া।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s