বিচারবহির্ভূত হত‍্যা নয় আত্মরক্ষার গুলি!


জাহাঙ্গীর আলম আকাশ ।। না, এগুলি বিচারবহির্ভূত হত‍্যা নয় আত্মরক্ষার গুলি! স্বরাষ্ট্রমন্ত্রি সাহারা খাতুন সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় শেষপর্যন্ত দু:খ প্রকাশ করলেন। কিন্তু সাংবাদিক হত‍্যা-নির্যাতন বন্ধ করার ব‍্যাপারে কী বলেছেন তা জানা গেলো না! পুলিশ অন‍্যায় করলে তার শাস্তি হবে বলে সাহারা সাংবাদিকদের কাছে স্পষ্ট করে জানিয়ে দিলেন। কিন্তু সাগর-রুনির খিনিদের ধরা হচ্ছে না কেন সেব‍্যাপারে তিনি সাংবাদিকদের কী জানিয়েছেন তারও কোন কথা লেখা হয়নি সংবাদমাধ‍্যমে। সাহারা বিচারবহিভর্ূত হত‍্যাকান্ডকে সামনে এগিয়ে নেয়ার জন‍্য পরোক্ষভাবে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারি বাহিনীর পক্ষেই কথা বলেছেন। খুনিরা কেন ধরা পড়ে না, নিখোঁজ হোয়া মানুষগুলি কোথায় যাচ্ছে এসব গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নেরও কোন জবাব নেই সাহারাদের কাছে।
পুলিশ ও র‍্যাব নাকি আত্মরক্ষায় গুলি চালায়! শয়তানরাও এমন মিথ‍্যাচার করে না। আটক হবার পর হ‍্যান্ডকাফ পরানো মানুষ গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যাচ্ছে। একযোগে ৫/৭ জন মানুষকে হত‍্যা করা হচ্ছে সাজানো অভিযোগে! ব‍্যবসায়িকে আটক করার পর তুলে দেয়া হচ্ছে খুনিদের হাতে। কেউ সন্ত্রাসী হলে বা কারও বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ ও মামলা থালেই কী কাউকে রাষ্ট্রীয় বাহিনী খুন করতে পারে? কোনধরণের হত‍্যাকান্ড কী কোন আইনে সমর্থনযোগ‍্য? সাহারাদের কাছে এর জবাব কী কেবল আত্মরক্ষার মতো মিথ‍্যাচার?
“পুলিশ অনেক ভালো হয়েছে” না এটা আমার বা জনগণের বিবেচনা নয়। সাহারা, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রি সাহারার মন্তব‍্য। পুলিশতো ভালো হয়েছেই! তাইতো তারা প্রকাশ‍্য দিনের আলোয় আদালত চত্বরে নারী লাঞ্ছনা করে, ব‍্যবসায়িকে তুলে নেয়ার কয়েকঘন্টার মধে‍্যই মেরে ফেলে, পেশাগত দায়িত্বপালনকালে সাংবাদিকদের বর্বরভাবে পেটায়, আদালতে পুলিশ-সাংবাদিক সবাইকে মারছে, তারা খুনি ধরতে পারে না কিন্তু খুন করতে ও নির্যাতন চালাতে ওস্তাদ। সাহারা-টুকুদের পুলিশকে ভালো না বলে উপায় আছে, নইলে যে তাদেরই ব‍্যর্থতা প্রকাশ পায়! ওখানে নিজের ব‍্যর্থতা কী কখনও নিজেই কেউ কোনদিন প্রকাশ বা স্বীতার করেছে? বিশেষ করে যারা ক্ষমতায় থাকে কিংবা মন্ত্রি/এমপি হয় তারা!
আসল কথা হলো “পিপিলিকার ডানা গজায় মরিবার তরে” নাকি! সরকারের অবস্থাটাও সেরকমই হয়েছে, অন্তত দেশের বাস্ত পরিস্থিতিটা ওদিকেই গড়িয়েছে দিন দিন! সাহারা-টুকু নাহয় পদ-পদবি রক্ষায় পুলিশের সাফাই গাইছেন! কিন্তু হাসিনা, জোট তথা মহাজোট সরকারের যারা উপদেষ্টা-বুদ্ধি-পরামর্শদাতা তাঁরাতো বড় বড় বিশ্ববিদ‍্যালয়ের শিক্ষক, অধ‍্যাপক তাঁরাও কী বিবেক বিকোয় দিয়েছেন নাকি? মহাজোটের নেতারা কী তবে দেশটাকে আবার আইয়ামে জাহেলিয়াতের যুগে নিয়ে যেতে চাইছেন নাকি পুরনো যুদ্ধাপরাধী, দুর্নীতি ও দু:শাসকদের হাতেই দেশের ভার তুলে দিতে চাইছেন, সেটা বোঝা যাচ্ছে না! ছবি গুগল থেকে নেয়া।

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s