উপরওয়ালাও কী আসল মানুষদেরই মারার বন্দোবস্ত করেন!

Stephane Cartoon

জাহাঙ্গীর আলম আকাশ ।। এক বোনের দুই পা কেটে ফেলে তাঁকে উদ্ধার করা হয়েছে রানা প্লাজার ধ্বংসস্তুপ থেকে। এই অমানবিক-নৃশংস ছবিটি এখন ফেইসবুক ব‍্যবহারকারি অনেককেই কষ্ট দিচ্ছে। স্বজনহারা মানুষগুলি আমার কেউ না, যারা নিহত বা আহত হয়েছেন তাদের কাউকেই আমি চিনি না। তারপরও কষ্ট পাচ্ছি, হাউমাউ করে কাঁদছি। না, শুধু আমিই নই, সারাদেশ আজ কাঁদছে, নিদারণ কষ্টে মানুষ। যাঁরা স্বজন হারিয়েছেন কী করে তাঁরা স্বজন হারানোর বেদনা ভুলবেন তাও জানা নেই। আর যাঁরা নিহত হয়েছেন তাঁরা নাহয় বেঁচেই গেছেন। কিন্তু যেসব মা-বোন-বাবা ও ভাইদের হাত-পা কেটে ফেলতে হচ্ছে, কিংবা যাঁরা বেঁচে আছেন কিন্তু উদ্ধার জটিলতায় হয়ত একসময় জীবনপ্রদীপ নিভে যাবে তাঁদের কষ্ট, যন্ত্রণা কী আমাদের রাষ্ট্র পরিচালকদের মনে ন্যূনতম দোলা দেয়? তারা পাল্টাপাল্টি রাজনৈতিক মজা নেবার জন্যই একে অপরকে দোষারোপ করছে নাকি?
বিএনপি নেতা এমকে আনোয়ার সাভার ট্রাজেডির বিচার বিভাগীয় তদন্ত চাইলেন। এমন দাবিতো স্বেদেশে ঘটনা ঘটলেই ওঠে। উনারা যখন ক্ষমতায় ছিলেন তখনও বিচার বিভাগীয় বহু দাবি উঠেছিল। দেশে ঘটনা ঘটলেই প্রথমে ওঠে দোষারোপের পালা, পরবর্তী ধাপে আসে তদন্ত কমিটি গঠনের পালা। হরেক রকমের তদন্ত, বহু কমিটি। কাজের কাজ কিছুই না। সবই ফাপা এবং ফাকা। বহু ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি হয়েছে অতীতে সব জামানাতেই। কিন্তু তদন্ত কী আলোর মুখ দেখে, নাকি তদন্ত রিপোর্টের সুপারিশ বাস্তবায়িত হয়?
বিএনপি নেতার ভাবখানা এমন যেন বিচার বিভাগ স্বাধীন, সব উদ্ধার হয়ে যাবে? দুবর্ৃত্ত রাজনীতির অবসান না হওয়া পর্যন্ত কোন কিছুতে লাভ হবে না সাধারণ মানুষের, মুষ্টিমেয় অর্থলোভী শয়তান ও দুবর্ৃত্ত রাজনীতিক ছাড়া!
সিস্টেমের পরিবর্তন, রাজনৈতিক (যারা দেশ চালায় পাঁচ বছর অন্তর) নেতা-নেত্রীদের মনোজগতের পরিবর্তন না হলে কী কোন ঝাঁড় ফুকই কাজে লাগবে সোনার বাংলায়। ওখানকার মাটি, বাতাস, জল, সবকিছুকেই পারলে ক্ষমতালোভীরা যেখানে লুট করে সেখানে যতই ভবন ধসুক, মানুষ মরুক তাতে তাদের কী কিছু আসে যায়? মোটেই না।
ঘটনার প্রায় তিনদিনের মাথায় প্রধানমন্ত্রি শেখ হাসিনা নির্দেশ দিলেন সেই আলোচিত রানা প্লাজার মালিক যুবলীগ নেতা সোহেল রানাকে গ্রেফতারের! কিন্তু কেন এত ঘন্টা পরে এই নির্দেশ, যাতে উনি ভালোভাবেই নিরাপদে পালিয়ে যেতে পারে তার জন্য? প্রধানমন্ত্রি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রি সাংবাদিক সাগর-রুনির খুনিদের ধরারওতো নির্দেশনা দিয়েছিলেন, কিন্তু কই সেই নির্দেশতো আজও কার্যকর হয়নি। তাহলে এমন লোক দেখানো নির্দেশনা দিয়ে লাভ কী, সস্তা ও হালকা বাহবা নেবার তামাশা? সাধারণ মানুষ কী বোকা! যে তাঁরা কিছুই বোঝেন না? আগের দিন সংসদে দাঁড়িয়ে বললেন যে এই রানার নাম নেই যুবলীগের কমিটিতে, যখন সারাদেশের মিডিয়া বলছেন যে উনি যুবলীগের নেতা এবং বহু দখল, লুট ও অপকর্মের হোতা।
আর কোন অপরাধীকে গ্রেফতার করার জন্য সরকার প্রধানকে নির্দেশনাই বা দিতে হবে কেন? পুলিশ, কালো বাহিনী রেব তাহলে জনগণ পুষবেই বা কেন? তারা কী এতদিন ধরে ঘোড়ার ঘাস কাটলো, নাকি প্রধানমন্ত্রির নির্দেশনার অপেক্ষা করছিল তারা? সোহেল রানাকে ধরার ইচ্ছে থাকলে কী প্রধানমন্ত্রি সংসদে মিথ্যা ভাষণ ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রি ভবনঝাঁকুনিতত্ত্ব দিয়ে দেশবাসির সঙ্গে রসিকতা করতে পারতেন?আমরা ঘর পোড়া গরু, তাই জে্যাসনার আলোতেই ডরাই কিনা। তাই সন্দেহ হয়  “গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছি, তবে ধরবেন না” এমন নির্দেশনা দেননিতো আমাদের প্রিয় প্রধানমন্ত্রী?
আসল কথা হলো অসহনশীলতা, পরমতের প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শনের অভাব, গণতন্ত্রহীনতা, দুর্নীতি, অবিচার আর আইন না মানা, আইনের শাসন না থাকা। এসবের ফলাফল গিয়ে পড়ে হরতাল, ভবনধ্বস, ভাংচুর, আগুন দেয়া, শ্রমের দাম না দেয়া, বিনা বিচারে মানুষ মারা, নিরপরাধ মানুষকে যখন তখন গ্রেফতার করা কিন্তু খুনিদের নয় এবং গণহারে মানুষ মারার সব আয়োজন পাকাপোক্ত করা! এসবে তাল দেই সবাই আমরা, যারা হয় হাসিনা নয়তো খালেদাকে ও তাঁদের রাজনীতিকে ভালোবাসি, পছন্দ করি এবং তাঁদের কাছ থেকে সুবিধা গ্রহণ করি! আর আগুনে পুড়ে, ভবন ধ্বসে মারা পড়েন মানুষ। ওরা কখনও মরেনা, যারা মানুষ মারে, মানুষের অধিকার লুণ্ঠন করে যারা সংসদে মিথ্যা বলে, একে অপরকে গালিগালাজ করে। গরীব-সাধারণ মানুষকে ধনবান ও ক্ষমতাবানরা যেভাবে খেলার পুতুল মনে করে ঠিক তেমনিভাবে উনি মানে উপরওয়ালাও শুধু আসল মানুষদেরই মারার বন্দোবস্ত করেন! ক্ষমতাবান, লুটেরা, দুর্বৃত্ত, র্দুনীতিবাজদের ওপর কোন ভবন ধ্বসে পড়ে না কারণ তারাতো গরীবের অধিকার ও সম্পদ লুট করে নিজেদের ঘর ও খুঁটি মজবুত করেই তৈরী করেছে।  কাটর্ুনটি (Stephane Cartoon)আরবনিউজ এর ওয়েবসাইট থেকে সংগৃহীত।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s