স্বদেশ বাঁচানোর কেউ নেই!

জাহাঙ্গীর আকাশ ।। যুদ্ধাপরাধ মামলার সাক্ষীকে মেরে ফেললো, সরকার কী ঘাস কাটে? মানুষের নিরাপত্তা কোথায়? ওরা এখন আরও মরিয়া, নৃশংস, ভয়ংকর ও তান্ডবি হয়ে উঠবে, এতে কোনই সন্দেহ নেই। শুধুমাত্র বড় বড় গালগপ্প আর গণতন্ত্র গণতন্ত্র বলে হৈ-হুল্লোড় করলেই বুঝি সংঘাত, সন্ত্রাস ও সহিংসতা দমন করা যাবে না। ক্ষমতার মোহ পরিহার করার মতো নৈতিক শক্তি আর মনে-প্রাণে ও বাস্তবিকতায় গণতন্ত্রের অনুশীলন ছাড়া কালো ও বর্বর শক্তিকে মোকাবেলা করাটাও অত সহজ হবে না। মহাজোটিদের “ধরি মাছ না ছুঁই পানি” এমন আচরণ, আইনের শাসনহীনতা, ক্ষমতায় চিরস্থায়ী থাকার বাসনা আর দুবর্ৃত্তদের ছাড় দেবার মানসিকতা স্বদেশকে ক্রমাগত অন্ধকারেই নিয়ে যাচ্ছে। আর যারা যুদ্ধাপরাধী, স্বৈরাচার, স্বাধীনতাবিরোধী এবং এই অপশক্তিগুলির আশ্রয়-প্রশ্রয়দাতা রাজনৈতিক দল সম্পর্কে বলার কিছু নেই, কারণ তারাতো ওদের বাঁচাতেই চাইবে, কিন্তু চেতনাধারিরা দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে ওদের বিচারটা শেষ করতে পারলো না! কষ্ট হলো এই স্বদেশকে-এখন মিনি পাকিস্তান, আফগানিস্থান নতুবা একটা তালেবানি আইয়ামে জাহেলিয়াতির রাষ্ট্রে পরিণত করার পথকে সুগম করে দিলো “প্রগতিশীল” সরকারের দোদুল্লমানতা! কে বাঁচাবে আমার স্বদেশকে?

মন্তব্য করুন

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s